সরকারী তিতুমীর কলেজের ৫০ বছর পূর্তি, উৎসব চলবে ৪ মাস

রাজধানীর ঢাকায় অবস্থিত সরকারি তিতুমীর কলেজ। কলেজটি ১৯৬৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। সে সময় কলেজটি জিন্নাহ কলেজ নামে পরিচিত ছিল। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর কলেজটির নাম পরিবর্তন করে তিতুমীর কলেজ রাখা হয়।

প্রতিষ্ঠার ৫০ বছর পূর্ণ করেছে সরকারি তিতুমীর কলেজ। দেশের অন্যতম প্রাচীন এ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সুবর্ণজয়ন্তী দীর্ঘ চার মাসব্যাপী জমকালো উৎসব অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে উদযাপন করা হবে। একই সঙ্গে উদযাপন করা হবে স্বাধীন বাংলাদেশের পঞ্চাশ বছর এবং বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ।

প্রতিষ্ঠানটির ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিতুমীর কলেজের অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন ও কলেজের ৫০ বছর উদযাপন পর্যদের আহ্বায়ক বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি জানান, ‘আমরা দৃঢ়ভাবে জানাতে চাই , সবাইকে সঙ্গে নিয়ে বৃহৎ পরিসরে আয়োজন করা হবে সরকারি তিতুমীর কলেজের সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠান। এ ছাড়া স্বাধীন বাংলাদেশের পঞ্চাশ বছরের পাশাপাশি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উদযাপন করতে চাই।

বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলন টিপু মুনশি আরো বলেন, চলতি বছরের ডিসেম্বর থেকে শুরু করে ২০২০ মার্চ পর্যন্ত অর্থাৎ চার মাসব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালার মধ্য দিয়ে সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করতে চাই। এ উপলক্ষে titumir.org নামক একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়েছে। যেখানে তিতুমীর কলেজের সাবেক শিক্ষার্থীরা নাম রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, চলতি বছরের ডিসেম্বর মাসেই আমরা পুনর্মিলনের আয়োজনের লক্ষ্য নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছি। মাসব্যাপী অনুষ্ঠানমালার সমাপনীতে সুবর্ণজয়ন্তীর মূল অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ কিংবা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে প্রধান অতিথি করার বিষয়ে আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। আশা করি, শিক্ষাবান্ধব রাষ্ট্রপ্রধান ও সরকারপ্রধান এ বিষয়ে আমাদের আমন্ত্রণে সদয় সম্মতি জ্ঞাপন করবেন।

কলেজটির সাবেক এই শিক্ষার্থী আরও বলেন, বর্তমানে কলেজের শিক্ষার্থী সংখ্যা প্রায় ৬০ হাজার। শিক্ষক রয়েছেন প্রায় ৩০০। বর্তমানে ১২টি বিদ্যালয় সমান মাস্টার্স কোর্স চালু রয়েছে। ২০১৭ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি তিতুমীর কলেজসহ রাজধানীর সাত সরকারি কলেজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভুক্ত করা হয়।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close