ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দিবসঃ গৌরবের ৯৮ বছর

সোমবার (১ জুলাই) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) দিবস।এই দিনে প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত বাংলাদেশের ইতিহাসের প্রথম বিশ্ববিদ্যালয়টি ৯৮ তম বছরে পা রাখবে। ১৯২১ সালের এইদিনে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়েছিল। দিবসটি উপলক্ষে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীসহ দেশবাসীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। পাশাপাশি দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে।

বোববার (৩০ জুন) অধ্যাপক আবদুল মতিন চৌধুরী ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে আয়োজিত এক প্রেসব্রিফিংয়ে তিনি এই শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। এ সময় প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. কামাল উদ্দীনসহ সিনেট ও সিন্ডিকেট সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রেসব্রিফিংয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, ‘এ বছরের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দিবস ‘মুজিববর্ষ ২০২০’ এবং ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষ উৎসব ২০২১’ এর আগমনী বার্তা। এ দু’টি বেঞ্চমার্ককে সামনে রেখে শিক্ষার গুণগত মান নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বাস্তবসম্মত ও বিজ্ঞানভিত্তিক কর্মপরিকল্পনা নেওয়া হবে। শিক্ষা ও গবেষণার উৎকর্ষ সাধনের লক্ষ্যে একজন এমিরিটাস অধ্যাপকের নেতৃত্বে কমিটি গঠন করা হবে। এই কমিটির পরামর্শ ও সুপারিশের ভিত্তিতে নতুন কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করা হবে। ’

বিশ্ব র‌্যাংকিংয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান সুসংহত করতে এই কমিটি ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। এ সময় তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক উন্নয়নে গণমাধ্যমের সমর্থন ও সহযোগিতা চান।

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে দিনব্যাপী কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- সকাল ১০টার আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক- শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রশাসনিক ভবন সংলগ্ন মলে জমায়েত, জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয় এবং হলসমূহের পতাকা উত্তোলন, পায়রা উড়ানো, কেক কাটা, সংগীত বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উদ্বোধনী সংগীত পরিবেশন এবং উপাচার্যের নেতৃত্বে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রাসহ ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে গমন।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান সোমবার সকাল ১০টায় প্রশাসনিক ভবন সংলগ্ন মল-চত্বরে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে দিনব্যাপী কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। এছাড়া সকাল ১১টায় ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র মিলনায়তনে ‘গুণগত শিক্ষা, প্রতিবন্ধকতা ও উত্তরণ’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন ইংরেজি বিভাগের এমিরিটাস অধ্যাপক ড. এ এফ এম সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করবেন।

দিবসটি উপলক্ষে সকাল ১০টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গ্রন্থাগারে দুর্লভ পাণ্ডুলিপি প্রদর্শন করা হবে। চারুকলা অনুষদের উদ্যোগে বেলা ৩টায় অনুষদ প্রাঙ্গণে শিশু-কিশোর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। বায়োমেডিকেল ফিজিক্স অ্যান্ড টেকনোলজি বিভাগের উদ্যোগে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত কার্জন হল ভবনের উত্তর-পূর্ব বারান্দায় উদ্ভাবিত চিকিৎসা প্রযুক্তির যন্ত্রপাতি প্রদর্শন করা হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু)-এর উদ্যোগে সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয় সুইমিং পুলে সাঁতার প্রতিযোগিতা, দুপুর সাড়ে ১২টায় ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র থেকে সাইকেল শোভাযাত্রা এবং বিকেল ৩ টায় কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি ও ডাকসুর মধ্যে প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল অনুষদ, বিভাগ, ইনস্টিটিউট ও হল দিনব্যাপী নিজ নিজ কর্মসূচির মাধ্যমে দিবসটি উদযাপন করবে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- কেক কাটা, বিতর্ক প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা, রচনা প্রতিযোগিতা, বৃক্ষরোপণ, মিষ্টি বিতরণ ও আলোকসজ্জা।

দিবসটি উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ভবনে আলোকসজ্জার ব্যবস্থাসহ তিনটি গুরুত্বপূর্ণ প্রবেশপথে সুসজ্জিত তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে ১ জুলাই ২০১৯ সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল ক্লাস ও পরীক্ষা বন্ধ থাকবে। তবে হল, বিভাগ, ইনস্টিটিউট ও অন্যান্য অফিস যথারীতি খোলা থাকবে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close